শিরোনাম :
মুক্তিযোদ্ধাদের স্বপ্নে আবার জ্বলে উঠুক আমাদের বাংলাদেশ ইসলামপুরে এফ এইচ খান বুদ্ধি প্রতিবন্ধী বিদ্যালয়ের শিক্ষাথীদের মাঝে শীত বস্ত্র বিতরণ ইসলামপুরে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে শিক্ষককে মারধর ভোক্তাদের ভিন্নধর্মী ক্যাটারিং অভিজ্ঞতা দিতে হুয়াওয়ের সাথে সোডেক্সো প্রায় ২০০ এর অধিক মৃতের কবর খনন করে দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে জুয়েল ও সহযোগী হিমেল গ্রাম বাংলার ঐতিহ্যবাহী গরুর গাড়ির দৌড় প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত স্যামসাং আনপ্যাকড ইভেন্ট-ওয়েলকাম টু দ্য এভরিডে এপিক শহিদ মিনারের দাবীতে ইসলামপুরে ৯৭ব্যাচের মানববন্ধন এমদাদুল হক খান চান স্যার স্মৃতি ফাউন্ডেশনের শীতবস্ত্র বিতরণ নৌকা হলো উন্নয়ন ও ভাগ্য পরিবর্তনের প্রতিক,ব্যক্তিকে নয় নৌকাকে ভালোবাসি


প্রবাসীদের বাস্তব জীবনের গল্প নিয়ে এস এম কামরুজ্জামান সাগরের – অবদান

বিনোদন ডেস্ক :: সোলেমান মিয়া, দীর্ঘ ১৫ বছর পর প্রবাস থেকে ছুটিতে গ্রামে আসে। গ্রামে আসার পর সে উপলব্ধি করতে পারে,পরিবার, সমাজ, আত্নীয় স্বজনদের প্রতি তার অবদান কতটুকু।

সমাজে সন্মান পেতে হলে,শুধু বয়স বাড়লেই হয় না, তার সাথে প্রয়োজন মোটা অংকের টাকার। তেমনই এক চমৎকার গল্প নিয়ে, চ্যানেল আইয়ের জন্য সম্প্রতি শুটিং সম্পন্ন হলো, ‘‘অবাদন ‘’ নামের টেলিভিশন কাহিনীচিত্রটির।

গত ঈদে , ‘‘বাবারা সব পারে ‘’র ব্যপক সাফল্যর পর আবারো পাপ্পু রাজের রচনায় , গল্প প্রধান নাটকের অন্যতম গুনি নির্মাতা এস এম কামরুজ্জামান সাগর নির্মান করলেন জীবন বোধের এই টেলিভিশন কাহিনীচিত্র।

পূবাইলের মনোরম পরিবেশে এই কাহিনীচিত্রটিতে অভিনয় করেছেন – ফজলুর রহমান বাবু ,সাইকা আহমেদ, মিষ্টি জাহান, শিবলী নওমান, সাজ্জাদ স্বপন, হাসি মন প্রমুখ।

গল্প প্রসঙ্গে, ফজলুর রহমান বাবু বলেন, সাগরের নির্মাণ নিয়ে নতুন করে কিছু বলার নেই, কেননা তার গল্প বাছাই খুব সুন্দর হয়। আর সেক্ষেত্রে পাপ্পু রাজ খুব চমৎকার ভাবে চিত্রনাট্য লিখেছে। এছাড়াও গুছানো একটি ইউনিটে কাজ করে,খুব ভাল লেগেছে আমার।নিঃসন্দেহে ভাল একটি কাজ হয়েছে।

সাইকা আহমেদ বলেন, সাগর ভাইয়ের কাজ মানেই চমৎকার আবহে একটি অর্থ বহ মেসেজ দেয়া। যা তিনি খুব সুনিপুন ভাবে দিতে জানেন। মিষ্টি জাহান বলেন, গল্পে আমি ফজলুর রহমান বাবু ভাইয়ের মেয়ের চরিত্রে অভিনয় করেছি। চরিত্রটি করে, আমি খুব তৃপ্তি পেয়েছি। এটা সাগর ভাইয়ের সাথে আমার প্রথম কাজ। কাজটি নিয়ে আমি বেশ আশাবাদী।

শিবলী নওমান বলেন, এক কথায়, আমার কাছে পুরো ব্যাপারটাই দারুন লেগেছে। গুনি মানুষদের সানিধ্যে কাজ করতে পারলে ,অনেক কিছু শেখা যায়। যেমন গল্প, তেমনই দক্ষতার সাথে নির্মান হয়েছে বলে আমি মনে করি।

কাহিনিচিত্রটি প্রযোজনা করেছেন ১৯৫২ এন্টারটেইনমেন্ট’র কর্ণধার সাজু মুনতাসির। ‘‘অবদান ‘’ টেলিভিশন কাহিনীচিত্রটি আজ ২৫ সেপ্টেম্বর, দুপর ৩:০৫ মিনিটে দেখা যাবে , চ্যানেল আইয়ের পর্দায়।

A House of M.R.Multi-Media Ltd
Design & Development By ThemesBazar.Com