সিরাজের স্ত্রী লুৎফার ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার

প্রকাশিত: ২:০৯ পূর্বাহ্ণ, মে ১৬, ২০২২

বর্তমান খবর,বিনোদন ডেস্ক : কলকাতার একটি আবাসনের ঘর থেকে ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার হল টলিউডের এক অভিনেত্রীর। তার নাম পল্লবী দে। ‘আমি সিরাজের বেগম’ ধারাবাহিকে সিরাজের স্ত্রী লুৎফার চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন পল্লবী।

এই চরিত্রের জন্য তিনি জনপ্রিয়ও হয়ে ওঠেন। তার আগে ‘রেশম ঝাঁপি’ ধারাবাহিকেও তাকে গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে দেখা গিয়েছিল। টলিউডে পল্লবীর যাত্রা খুব বেশি দিন হয়নি। ‘কুঞ্জছায়া’ নামে একটি ধারাবাহিকেও তিনি অভিনয় করেছিলেন।

রবিবার সকালেই কলকাতার গড়ফার ফ্ল্যাট থেকে পল্লবীর ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার করেন তার সঙ্গী। তিনিই পুলিশকে খবর দেন।  পুলিশ অভিনেত্রীর দেহ উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যায়। ইতিমধ্যেই অস্বাভাবিক মৃত্যুর মামলা রুজু করেছে পুলিশ।

বর্তমানে পল্লবী অভিনয় করছিলেন ‘মন মানে না’ ধারাবাহিকে। সেখানে তিনি নায়িকার চরিত্রে অভিনয় করছিলেন। চ্যানেলের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, পল্লবী একদম স্বাভাবিক ভাবেই বৃহস্পতিবার পর্যন্ত শ্যুট করেছেন। তারপর কী ভাবে এই ঘটনা ঘটল, বুঝতে পারছে না কেউ।

অভিনেত্রীকে বৃহস্পতিবার দেখেও কেউ কিচ্ছু বুঝতে পারেননি বলেই দাবি করেন চ্যানেল কর্তৃপক্ষ। ঘটনাস্থল থেকে কোনও রকম সুইসাইড নোট উদ্ধার হয়নি। পল্লবীর শরীরেও কোনও আঘাতের দাগ দেখা যায়নি। পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে দেখে এক যুবক পল্লবীকে কোলে নিয়ে বসেছিলেন।

অভিনেত্রীর তখন জ্ঞান ছিল না। তার গলায় ফাঁসের দাগ স্পষ্ট। জানা গিয়েছে, সেই যুবকের নাম সাগ্নিক চক্রবর্তী। পল্লবীর প্রেমিক তিনি। দেড় বছর ধরে তাঁরা একত্রবাস করছিলেন। ফেব্রুয়ারি মাস থেকে তারা সেই ফ্ল্যাটে থাকতে শুরু করেন।

জানা যায়, গত রাত থেকেই বিবাদ চলছিল সাগ্নিক এবং পল্লবীর মধ্যে। রবিবার সকালেও থামেনি ঝামেলা। সকাল সাড়ে ন’টার দিকে সিগারেট খাওয়ার জন্য ঘরের বাইরে যান সাগ্নিক। পল্লবী তখন ছিলেন শোওয়ার ঘরেই। সাগ্নিক ফিরে এসে দেখেন ঘরের দরজা বন্ধ।

এরপরেই ঘটে অঘটন। এরপর ধাক্কা মেরে দরজা খুলে পল্লবীর দেহ নামান তিনি। আপাতত বাঙুর হাসপাতালে ছুটে গিয়েছেন পল্লবীর সহকর্মীরা। অনেকেই তার মৃত্যুর খবর বিশ্বাস করতে পারছেন না। তার অকাল প্রয়াণে শোকাহত টলিপাড়া।